Hardware & DeviceScience

ইচ্ছাকৃতভাবে ভূমিকম্পের মাধ্যমে গুড়িয়ে দেয়া যাবে শহর!

নিকোলা টেসলার ভূমিকম্প মেশিন! যা দিয়ে ইচ্ছে করে ঘটানো যায় ভূমিকম্প…

যদি পৃথিবীর মধ্যে অন্য চিন্তাধারার উন্মাদ প্রকৃতির সবচেয়ে বুদ্ধিমান বিজ্ঞানীদের তালিকা করা হয় তাহলে সেই তারিকায় সবার আগে থাকবে নিকোলা টেসলা। ওনার বেশির ভাগ আবিষ্কার গুলোই হয়তো অর্ধেক তৈরি হওয়ার পর সে নিজে বন্ধ করে দিয়েছে অথবা তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তার এমনই একটি আবিষ্কার সম্পর্কে আজ আমরা জানবো।

The Earth-Quack Machine!!
এমন একটি যন্ত্র যা দিয়ে ইচ্ছে করে ভুমিকম্প ঘটানো সম্ভব। বালুর ন্যায় গুড়িয়ে দেয়া সম্ভব একটি শহর।
১৮৯৩ সালে নিউইয়র্ক শহরে টেসলা একটি বাষ্পচালিত অসিলেটর এর প্রোটো-টাইপ(ডেমো) নিয়ে কাজ করছিলেন যা বিদ্যুৎ উতপন্ন করতে সক্ষম। এবং ওই প্রোটো-টাইপ পরিক্ষা করার জন্য যখন তিনি যন্ত্রের পাওয়ার বাড়িয়ে দেন। এবং ক্রমান্বয়ে তা বাড়াতে থাকেন। তার ৪-৫ সেকেন্ড পরই সে একটা ঝাকুনি অনুভব করে এবং একমুহূর্তের জন্য তার ল্যাবরেটরিতে থাকা সব কিছুকে উড়তে দেখেন এবং তিনি বুঝতে পারেন কিছু একটা হতে চলেছে এবং তিনি হাতুরি নিয়ে সংগে সংগে ওই যন্ত্র ভেংগে ফেলেন।

যখন তিনি ওই বাড়ি থেকে বের হন তিনি দেখতে পান ওই ব্লিন্ডিং সহ আশেপাশের কয়েকটা বিল্ডিং ভেঙে গেছে এবং কিছু কিছু বিল্ডিং ভেঙে পড়েছে। তখন তিনি তাদের ল্যাবরেটরিতে থাকা অন্যদেরকে বলে দেন যাতে পুলিশ আসলে তারা বলে ভুমিকম্প হয়েছে এবং তারাও সেই কথাই পুলিশ কে জানায়। এই ঘটনার কয়েক বছর পর এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই কথা সবাইকে জানান। এবং তার ওই মেশিন ভেঙে ফেলা হলেও তার প্রজেক্ট রিপোর্ট কিন্তু ঠিকই রয়ে গেছে।

যা আমেরিকান এক কম্পানি বিপুল অর্থের বিনিময়ে কিনে নিয়েছিলো এবং পরে চাপের মুখে তা সামরিক বাহিনিকে হস্তান্তরিত করতে বাধ্য হয়েছিলো। যা দিয়ে বর্তমানের প্রযুক্তি ব্যবহার করে একটি শহর এমনকি একটি ছোট খাটো দেশও গুড়িয়ে দেয়া সম্ভব। বৈজ্ঞানিক ওবং প্রযুক্তিগত এসব রোমাঞ্চকর তথ্য পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের পাশেই থাকুন এবং আপনার বন্ধুদেরকে জানানোর উদ্দেশ্যে তাদের সাথে শেয়ার করুন।
ধন্যবাদ

inotic-1
News Tech24 – Technology News Online

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button