ScienceTechnology

লাশ যখন ভাবতে এবং চলতে সক্ষম!!

Cryopreservation Machine

Cryopreservation ক্রায়ো-প্রিজারভেশন হলো এমন এক পদ্ধতি যেখানে মানুষ মরে যাওয়ার পরেও তাদের শরীরের প্রতিটি অঙ্গকে জীবিত রাখা হবে। হ্যা আপনি ঠিকই শুনছেন। এমনটাই ঘটিয়ে থাকে এই পদ্ধতিতে। আর এই জীবিত রাখার কার্যক্রম চালানো হয় বছরের পর বছর পর্যন্ত।

সাধারণত মানুষ মরে যাওয়ার সাথে সাথে তার শরীরের রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তার দেহকোষ গুলি মরে যাতে থাকে অক্সিজেনের অভাবে। কিন্তু ক্রায়ো-প্রিজারভেশন এমনই এক পদ্ধতি যেখানে কৃত্রিম ভাবে এই সকল কাজ গুলো ঘটানোর মাধ্যমে দেহকে সচল রাখা হয়। হয়তো মৃতদেহটার মধ্যে জীবন থাকে নাহ। কিন্তু তার কোষগুলো কৃত্রিমভাবে এমন ধারণা দেয়া হয় যে সে এখনো বেচে আছে। কিন্তু কোষ বাচিয়ে রাখা সম্ভব হলেও মানুষের চিন্তা ভাবনা আসে ব্রেইন থেকে। কিন্তু মানুষ মরে গেলে ব্রেইন আর কিছু চিন্তা করতে পারে নাহ। তাই কৃত্রিম ভাবে কোষকে বাচিয়ে রাখা গেলেও সেই ব্রেইনকে আর কোনো ভাবে ভাবিয়ে তোলা সম্ভব হয় নাহ।

কিন্তু আপনার মনে হতে পারে তাহলে এমন করে কি লাভ?
কারাই বা এমন করে, আর কেনই না করে?আপনি জানলে অবাক হবেন যে জীব-বিজ্ঞানের সবচেয়ে মেধাবী এবং চৌকষ বিজ্ঞানীদের দ্বারাই এই কাজ করানো হয়। কারণ ধারণা করা হয় যে ভবিষ্যতে কোনো একসময় এমন প্রযুক্তি আসবে যে তখন মৃতমানুষের ব্রেইনকে জাগিয়ে তোলা যাবে অথবা তার ব্রেইনে থাকা তথ্যগুলো এবং চিন্তা করার প্যাটার্ন গুলোকে কম্পিউটারের মধ্যে প্রতিস্থাপন করা যাবে।

আমরা ইতোমধ্যেই প্রযুক্তির কল্যানে দেখতে পারছি যে মেশিন লার্নিং ল্যাংগুয়েজ দিয়ে মেশিনকে ভাবিয়ে তোলা সক্ষম হয়েছে এবং এইটাও ধারণা করা যায় যে নিউরোলজিক্যাল সাইন্স এর উন্নতির ফলে একটা সময় ওই ব্রেইনকে জাগিয়ে তোলা যাবে। এবং তখনই তার দেহও আবার ঠিক আগের মতই কাজ করবে।

মানেহ মৃত মানুষটা জীবিত না হলেও কৃত্রিম ভাবে তা চিন্তা ভাবনা এবং হাটা চলার শক্তি ঠিকই ফিরে পাবে। যা অনেকটা জীবিত থাকার মতই। তাই বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন অনেক মানুষকে এই ক্রায়ো-প্রিজারভেশন এর আওতাধীন রাখা হয়।

বৈজ্ঞানিক এবং বং প্রযুক্তিগত এসব রোমাঞ্চকর তথ্য পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের পাশেই থাকুন এবং আপনার বন্ধুদেরকে জানানোর উদ্দেশ্যে তাদের সাথে শেয়ার করুন।
ধন্যবাদ

inotic-1
News Tech24 – Technology News Online

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button